• Hobbies and Dreams

2007 এর পুরানো স্মৃতি: উত্তর পূর্ব ভারত ভ্রমণ


(মায়াপুর-জলদাপাড়া অভয়ারন্য-কামাক্ষ্যা মন্দির-শিলং-তারাপীঠ-শান্তিনিকেতন)

আমরা ২007 সালে উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় ভারত ভ্রমণ করে ঐ সফরের একটি ভিডিও তৈরি করেছিলাম, সেই সময়। এখন 10 বছর পেরিয়ে গিয়েছে, আমরা আপনার জন্য সেই ভিডিওটি আপলোড করছি, বন্ধু! আশা করি, আপনি দেখে উপভোগ করবেন। ভিডিওটির মান ততটা ভালো নয়, এটি সেই সময়ের হিসাবে যথাযোগ্য প্রাপ্ত ছবির কোয়ালিটি।

শুরুতে আমরা পশ্চিমবঙ্গের নদিয়া জেলার 'মায়াপুর' ভ্রমণ করেছিলাম। যেখানে মহাপ্রভু শ্রী চৈতন্য জন্মগ্রহণ করেছিলেন এবং তাঁর 'লীলা' দেখিয়েছিলেন। মায়াপুরের কয়েকটি দ্রষ্টব্য স্থান আছে; 'খোল-ভাঙ্গার-ডাঙ্গা', 'শ্যাম কুন্ড', 'রাধা-কুন্ড', 'মাসি-মেসোর বাড়ি' ইত্যাদি। সন্ধ্যায়, আপনি "বিগ্রহ" প্রদক্ষিণ করতে পারেন। অর্থাৎ, ভগবান কৃষ্ণ ও রাধা মূর্তি র চারদিকে পরিক্রমা করতে পারেন সন্ধ্যায় নাম-গান হয়ে গেলে। এই বিখ্যাত মন্দিরের প্রতিষ্ঠাতা শ্রীল প্রভুপাদের সমাধি-মন্দির, এখানে দেখার জন্য অন্য আর একটি স্থান।

ভাগীরথী ও জলঙ্গি নদী এখানে প্রবাহিত এবং আপনি দুটি ভিন্ন স্রোতকে পাশাপশি আলাদাভাবে বইতে দেখতে পারেন; দুটো আলাদা বর্ণে। বিখ্যাত 'নবদ্বীপ', নদীর বিপরীত দিকে অবস্থিত,যেখানে গৌড়িয় মঠ" আছে।

'মায়াপুর ছেড়ে যাওয়ার পর, আমরা' জলদাপাড়া-অভয়ারন্যে 'পৌঁছলাম এবং আমরা পাহাড় থেকে বয়ে আসা জল-প্রবাহের পাশে একটি পিকনিক করেছিলাম। জলদাপাড়ার পর, আমরা উত্তর-পূর্বাঞ্চলীয় আসামের কামরূপ জেলায় কামাক্ষা-মন্দির দর্শনে গিয়েছিলাম। কামাক্ষ্য-মন্দিরটি নিজের নামেই বিখ্যাত। প্রত্যেক বাংলা-ক্যালেন্ডার বছরে, 7 ই আষাঢ়, এখানে একটি মেলা অনুষ্ঠিত হয়। এই মন্দির 16শ শতাব্দী থেকে 'নীলাচল' পাহাড় এ অবস্থিত।

51 টি পীঠ রয়েছে, যা দেবী মাতা 'সতী'র দেহ-অংশ থেকে উদ্ভূত হয়। দক্ষ-যজ্ঞে ভগবান শিব আমন্ত্রিত ছিলেন না।তিনি দেবী মা সতী'র স্বামী। মা সতী ছিলেন রাজা দক্ষের কন্যা। তিনি যখন এই সম্পর্কে অভিযোগ করেন, তখন, রাজা দক্ষ কু-কথায় ভগবান শিবকে অপমান করেন। ফলস্বরূপ, মা সত্যী তাঁর আত্মা / জীবন উত্সর্গীকৃত করেন, অভিমানে। ভগবান শিব তখন চরম ক্রোধে, 'মাতা-সতী'র দেহ কাঁধে নিয়ে, তাণ্ডব' শুরু করেন। পৃথিবী ধ্বংস হওয়ার উপক্রম হয়। ভগবান বিষ্ণু পৃথিবী-মা কে রক্ষা করতে এগিয়ে আসেন এবং অজ্ঞাতসারে তাঁর "সুদর্শন-চক্র" দিয়ে সতী-মায়ের দেহ খণ্ডে-খণ্ডে খণ্ডিত করেন, আড়াল থেকে, লুকিয়ে লুকিয়ে। সেইসব খণ্ডিত 51 টি অংশের একটি অংশ থেকে মা-কামাক্ষা'র-মন্দির উৎপত্তি হয়।

কামাক্ষা-মন্দিরের দিকে এগোনোর পথে, বিপুল সংখ্যক ছবি আমরা বন্দী করেছিলাম এবং তাদের অধিকাংশই ছিল চমৎকার এবং তাদের মধ্যে কিছু কিছু নিচের লিঙ্কযুক্ত ভিডিওতে প্রকাশ করা হয়েছে। চারণক্ষেত্র থেকে ফিরে রাখাল তার গরুগুলো নিয়ে নদী প্রবাহ হেঁটেই পের হচ্ছে; এবং আরও অনেকছবি (আপনারা ভিডিওটি দেখুন) ।

শিলং-এ, গল্ফ-কোর্সে আমাদের ভ্রমণের সময়, আমি হাতে একটি গলফ-স্টিক তুলে নিয়েছিলাম, জীবনে প্রথমবার এবং আমার প্রথম প্রচেষ্টাতেই বলটিকে গর্তে ফেলতে পেরেছিলাম। ভিডিওতে, আপনি এখনও ছবিটি দেখতে পাবেন, যেখানে আমি গল্ফ-স্টিক্টি ধরেছিলাম শুধু স্ন্যাপ ক্লিক করার পরেই, বলে স্ট্রোক্ নিই; এবং ঘটনাটি ঘটে।

শিলং-এ ঘুরে দেখার জন্য বেশ কয়েকটি স্থান রয়েছে: "শিলং-ভিউ-পয়েন্ট" "এলিফ্যান্ট ফল্স্", "বাটার-ফ্লাই-হিল", "চেরাপুঞ্জি" র 'মৌসিনরাম' ইত্যাদি।

'তারা-পীঠ' -এ, আমরা রাতে পৌঁছেছিলাম; তাই, আমরা এখানে যথেষ্ট ছবি তুলতে পারি নি এবং পরের দিন সকালের দিকেই চলে যাওয়ায়, যথেষ্ট ছবি নেওয়া হয়নি।

'তারা-পীঠ' ছেড়ে আমরা বিখ্যাত "শান্তি-নিকেতন" গিয়েছিলাম। যে স্থান তার নামেই পরিচিত।প্রকৃতির মাঝে, যেখানে শান্তির নীড়। রবীন্দ্রনাথের স্মৃতি সর্বত্র ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে।

এই ভ্রমণ, বাড়ি থেকে দূরে অন্য কোন জায়গায় আমাদের প্রথম ভ্রমণ ছিল।

এখানে ভিডিওটি দেখুন:

#NorthEasternIndiaTour #Mayapur #KamakshyaTemple #Shantiniketan

© 2027 By Hobbies and Dreams Proudly created by Hobbies and Dreams

  • Twitter Social Icon
  • Pinterest Social Icon
  • Instagram Social Icon
  • Facebook Social Icon
  • YouTube Social  Icon