আরাকু উপত্যকায় বৃষ্টিকে ছুঁয়ে


আরাকু ভ্যালি ভ্রমণ আমাদের জীবনে একটি অবিস্মরণীয় অভিজ্ঞতা। আমরা এই ভ্রমণে আমাদের ছেলেকে প্রথমবার কোথাও নিয়ে গিয়েছিলাম, এই ছিল তার জীবনের প্রথম ভাইজ্যাগ দর্শন।

আরাকু ভ্যালিতে অনেক পর্যটন স্থান রয়েছে, যেমন "বোরা গুহা", "পদমপুরম বোটানিক্যাল গার্ডেন", "কফি গার্ডেন", "আদিবাসী মিউজিয়াম" ইত্যাদি। কিছু দর্শক এখানে বাঁশ-চিকেন (Bamboo-Chicken / One type of local food) উপভোগ করেন। যা একটি আঞ্চলিক খাদ্য হিসাবে পরিচিত ও বিখ্যাত।ভাইজ্যাগ থেকে আরাকু গমনকালে, 4 ঘণ্টার রাস্তা অতিক্রম করতে হয়েছিল, বাসে।কেউ কেউ এটা ট্রেনে যান।

এই দীর্ঘ যাত্রার জন্যই মূলতঃ এই আরাকু ভ্রমণ এই সফরের সবচেয়ে উপভোগ্য অংশ হয়ে উঠেছিল, আমাদের কাছে। আমরা কোনভাবেই এটা ভুলে যেতে পারি না।

আরাকু উপত্যকা হল, এশিয়ার বৃহত্তম উপত্যকা। আমাদের ভ্রমণের সময়, আমরা আরাকু-ভ্যালিতে বৃষ্টিপাতের সম্মুখীন হয়েছিলাম। এটি একটি রোমাঞ্চকর অভিজ্ঞতা ছিল।

বোরা গুহায় আমরা একটি প্রাকৃতিক গুহা দেখলাম, যা প্রায় এক কিলোমিটারের কাছাকাছি মাটির নীচে ছড়িয়ে আছে। মানুষজন এতে প্রবেশ করছিল। আদিবাসী মিউজিয়ামে, আমরা স্থানীয় মানুষদের ঐতিহাসিক জীবন দেখেছি এবং অনুভব করেছি তখনকার জীবনযাত্রা ও সংস্কৃতিকে।

বোটাননিক্যাল গার্ডেনে, টয়'Car-এ চড়ে, চক্কর দিয়েছি; পিকনিক করেছি।

কফি-গার্ডেনে ছবি তোলা কফির টেস্ট নেওয়া সবই করা যায়। এমনকি, কফির বীজ, তার গুঁঁড়ো কেনাও যায়।

কিভাবে আমরা এই ধরনের অসাধারণ অভিজ্ঞতা ভুলে যেতে পারি? আমরা ভুলতে পারি না।

ভিডিও দেখুন:


Recent Posts
Archive
Search By Tags
Follow Us
  • Facebook Basic Square
  • Twitter Basic Square
  • Google+ Basic Square

© 2027 By Hobbies and Dreams Proudly created by Hobbies and Dreams

  • Twitter Social Icon
  • Pinterest Social Icon
  • Instagram Social Icon
  • Facebook Social Icon
  • YouTube Social  Icon