(adsbygoogle=window.adsbygoogle ।।{}).push({ google_ad_client:"ca-pub-2524552414847157", enable_page_level_ads: true }) (adsbygoogle=window.adsbygoogle ।।{}).push({ google_ad_client:"ca-pub-2524552414847157", enable_page_level_ads: true })
 

হলদিয়া টাউনশিপ : দিনের শেষে


হলদিয়া শহর কেবল জনসংখ্যার সাথে ক্রমবর্ধমান, বা, স্ফিত হয়ে উঠছে, তা নয়, সেইসঙ্গে এটা বেড়ে উঠছে স্থিতিশীল আর্থিক স্বাস্থ্যের সাথেও। সৌন্দর্যবোধের অনুভূতিতে, এটি অসাধারণ। এই শহরটি হলদি নদী এবং হুগলি নদীর পাশে অবস্থিত। হুগলীনদী তার নাব্যতা হারিয়ে ফেলায় পশ্চিমবঙ্গের প্রধান বন্দর', "খিদিরপুর" তার গুরুত্ব হারিয়ে ফেলেছে। এই পরিস্থিতিতে, হলদিয়া বন্দর' অতিরিক্ত গুরুত্বের সঙ্গে উঠে এসেছে।

হলদিয়া প্রধানত শিল্প নগরী শহর। এই শহরের চারপাশে বিপুল সংখ্যক লোক জড়ো হয়েছেন। জীবিকাই মূল কারণ। স্থনীয় অধিবাসীরা তো আছেনই। সেইসব মানুষের মানসিক বিনোদনের জন্য, এই হলদিয়াকে নবরূপে সংশোধন করে সৌন্দর্যায়নে মন দেওয়া হয়েছে। এখন এটি সারা ভারতের মধ্যে একটি বিখ্যাত শহর হিসেবে পরিচিতি লাভ করেছে।

হলদিয়া শহর ও তার আসেপাশের মানুষজন কর্মব্যস্ত দিনের শেষে একটি বিশেষ স্থানে জড়ো হয়; হলদিয়া টাউনশিপ। হলদি নদীর পাশাপাশি, এই শহরটি দিনেদিনে সৌন্দর্যায়নের একটি চমৎকার ধারণা দিয়ে উত্থিত হয়েছে। নদীর অন্য দিকে, নন্দীগ্রাম অবস্থিত।

প্রতিটি দিনের শেষপ্রান্তে, মানুষ নদীটির সৌন্দর্য উপভোগ করতে এখানে আসেন এবং তার সাথে আর এক আকর্ষন হিসেবে সংযোজিত হয় নদী থেকে আগত সতেজ, তাজা বাতাসও। ধীরে ধীরে যখন অন্ধকার চারদিক ঢেকে দিতে থাকে, নদীটি তখন বর্ণে বর্ণে সেজে উঠতে শুরু করে। সেই' ক্ষণে ক্ষণে পরিবর্তনশীল রঙ ছুঁয়ে যেতে থাকে তীরে বসে থাকা অসংখ্য মানুষের মনেও।

প্রকৃতির এই খেলার সৌন্দর্য উপভোগ করার জন্য অপেক্ষমান অসংখ্য মানুষ, নদীর পাশে বসে; সূর্যাস্তের রক্তিম আভা মেখে মাথার উপর দিয়ে উড়ন্ত বলাকার সারির সজোরে বইতে থাকা বাতাসকে হার মানিয়ে এগিয়ে যাওয়ার নাছোড় প্রয়াস....... অসাধারণ!! অ্যামেজিং !! শুধুই মুগ্ধতা নিয়ে তাকিয়ে থাকা।।

একটি খুব সংক্ষিপ্ত ভিডিওতে, আপনি এসবের সামান্য কিছু নিদর্শন খুঁজে পেতে পারেন।

ভিডিওটি দেখুন অনুগ্রহ করে:

#Haldia #HaldiRiver #Beautiful #AwesomeHaldia

Recent Posts