(adsbygoogle=window.adsbygoogle ।।{}).push({ google_ad_client:"ca-pub-2524552414847157", enable_page_level_ads: true }) (adsbygoogle=window.adsbygoogle ।।{}).push({ google_ad_client:"ca-pub-2524552414847157", enable_page_level_ads: true })
 

Installation of Submersible Pump ।


একটা বাড়ি বানানোর সময়ে অন্যান্য সমস্ত উপকরণের পাশাপাশি পর্যাপ্ত পরিমানে জলের যোগানটাও অত্যন্ত জরুরী। এমনিতেই, যখন আপনি নতুন জায়গায় বাড়ি বানাচ্ছেন, বাড়ি বানানোর সময় ও তার পরবর্তীতে পানীয় জলের একটা সুরাহা করে নেওয়া উচিৎ। শুধুমাত্র পানীয়জলতো নয়, বাড়ি বানানোর উপকরণ হিসেবেও সেটা খুবই আবশ্যক। এখানে, নিচের ভিডিওতে আমরা সাব-মার্সিবল পাম্প বসানোর বিষয়ে আলোকপাত করব।

প্রথমেই একটা বিষয় মাথায় রাখতে হবে, একাজে যারা স্পেশালিষ্ট, তাদের সাথে সরাসরি deal করাটাই সবচেয়ে কাজের ও সাশ্রয়করও বটে। এমনিতেই আমরা ইতিউতি যেসব কথা শুনি, তা প্রকৃত সত্যকে বিশেষ একটা স্পর্শও করেনা। ছড়িয়ে-ছিটিয়ে থাকা মধ্য সত্বভোগীদের খপ্পরে পড়লে, খরচ একটু বেশীই হবে।

পাম্প বসানোর জন্য, ভূমিস্তর খনন করে পাইপটা যে নিচে নামবে, তার জন্য পাশেই একটা চৌবাচ্চা কেটে সাময়িক জলাধার বানিয়ে নিতে হয়; এখান থেকেই অবিরাম জলের ধারা ভূ-অভ্যন্তরে পাঠিয়ে, খননের কাজ চলতে থাকে। একটা পাম্প ঐ জলাধার থেকে জল পাম্প করে ঘুরতে থাকা পাইপের মধ্যে দিয়ে পাঠিয়ে খননে সহায়তা করে এবং ক্ষয় হওয়া মাটি, কাঁকর ইত্যাদি নিয়ে ঐ পাইপের পাশ দিয়ে উপরে উঠে আসে। উঠে আসা ঐ মাটিতে বালির অনুপাত, আকার এবং প্রকৃতি বিচার করে, অভিজ্ঞ ইঞ্জিনিয়ার বুঝে নেবেন, কোন level পর্যন্ত খননের আবশ্যকতা আছে।

একটা অত্যন্ত জরুরী বিষয় মাথায় রাখতে হবে, আজকাল যথেচ্ছ ভৌমজল উত্তোলনের কারণে মাটিতে জলের স্তর অনেক নিচে নেমে যাচ্ছে। আমরা শুধু নিতেই থাকলে, ফেরৎ দেওয়ার কথা ভুলে গেলে, একদিন হাহাকারে ভরে যেতে পারে জীবন। কাজেই, জল ব্যবহারের পরে, তাকে ভূ-অভ্যন্তরে পাঠানোর বন্দোবস্ত থাকাটা জরুরী। এটা দায়িত্ব। হ্যাঁ, ঠিকই ধরেছেন। Soak pit. অন্য ভিডিওতে soak-pit বানানো দেখাব; পরে।

ঘোরাতে ঘোরাতে ইঞ্জিনিয়ার যখন বুঝবেন, উপযুক্ত বালির layer পর্যন্ত পৌঁছানো গেছে, তখন, পাইপ তুলে, fiber পাইপ বসানোর পালা। এখানেও, একটা বিষয় মনে রাখার, যখন পাইপ ঘুরিয়ে খননের কাজ চলে, পাইপের মধ্যে দিয়ে প্রবাহিত হয়ে চলা জলে অর্থাৎ, জলের চৌবাচ্চা তথা water house-এ ভালো পরিমানে গোবর মেশাতে হবে। তাহলে, পাইপ তুলে নেওয়ার সময়ে খনন হওয়া গর্তে কোনও ধ্বস নামবেনা।

বিভিন্ন ধরনের ফাইবার পাইপ পাওয়া যায়, আজকাল। নিজের পছন্দের কোয়ালিটির পাইপ ঐ তুলে নেওয়া পাইপের জায়গায় install করতে হবে। শুরুতে ৬ - ৭টা filter পাইপ দিয়ে, প্রথমে ২ ইঞ্চির পাইপ ও পরে জলাধারের জন্য ৪ ইঞ্চির পাইপ install করে, ওরমধ্যে ওয়াশার' সহযোগে দুই ইঞ্চির আয়রন পাইপ দিয়ে vertical wash করতে হবে। মনে রাখা জরুরী, এই vertical wash-টাই কিন্তু বেশী গুরুত্বপূর্ণ ও আবশ্যক। তারপর, compressor wash.

পাইপ ওয়াশ হয়ে যাওয়ার পরে, submersible pump কানেকশন করে, পাইপের মধ্যে দিয়ে চালালে, প্রত্যাশিত জল পাওয়া যাবে। প্রথমের দিকে জল একটু গন্ধযুক্ত হয়, তাই, নিয়ম করে জল তোলাটা জরুরী। দু-তিন দিনেই গন্ধ কমে যাওয়ার কথা। প্রসঙ্গতঃ বলে রাখা ভালো, একাজে যদি দেশী গরুর গোবর ব্যবহার করা হয়, তাহলে, গন্ধটা হয় কম।

এবার আসা যাক, যদি পাইপ বসানোর সময়ে বড় পাথর পড়ে, কি করণীয়, সেই কথায়। এই বিষয়ে দুশ্চিন্তাটা মূলতঃ যে গ্রূপ কাজটা করছে, তাদের - বাড়ির মালিকের নয়। তবে, এজন্য কাজে দেরী হ'লে, অযথা অস্থির না হওয়াই ভালো। একটু ধৈর্য্য আবশ্যক।

এবার, প্রশ্ন আসবে, কতটা গভীরে গিয়ে ভালো জলের layer পাওয়া যেতে পারে, সেই বিষয়ে। এই প্রসঙ্গে সোজা কথায় যে উত্তর, সেটা হল - নির্দিষ্ট করে কোনও মাপ বলা যায়না। ভূ-ত্বকের সব জায়গাই সমান উপাদানে আর সমান্তরালে গঠিত নয়। এর কিছু হ্রাস-বৃদ্ধি রয়েছে। কোথাও কোথাও ২ - ৪ টি ২০ ফুটের পাইপ বসিয়ে সুস্বাদু জল মেলে, কোথাও আবার ৪৫টা - ৫০টা পাইপ বসা

নোর প্রয়োজন হয়ে পড়ে। তবে, হিসেবটা সোজা। পাইপ বেশী প্রয়োজন হ'লে, খরচও হবে বেশী।

#submersiblepump #submersiblepumpinstallation #waterpump #wellpump

Recent Posts